Google Adsense Account Approval করার টিপস (২০১৯)

আপনি কি Google Adsense account approval trick 2019 এর ব্যাপারে জানতে চান, তো আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। শুরু করার আগে আপনাদের বলে দিই, AdSense হল একটি CPC (Cost-per-click) এবং CPM (Cost-per-thousand-impressions) based advertise network. নতুন blogger দের একটি স্বপ্ন থাকে যেন তাড়াতাড়ি তাদের Adsense account approved হয়ে যায়। কিন্তু বেশীরভাগ এটা হয় না। Adsense কে বাকি সমস্ত advertise program থেকে সেরা মানা হয়। করান এটা বাকি সব থেকে অনেক ভাল পেমেন্ট করে। অনেক blogger এই আশায় blogging career শুরু করে, যেন তাদের blog এর জন্য Adsense account approved হয়ে যায়, যাতে তারা সেখান থেকে অনেক ভালো একটা ইনকাম করতে পারে। কিন্তু এটা যতটা সোজা মনে হয়, ততটা সোজা নয়।

যাদের approve হচ্ছেনা তারা কিছু rules কে follow করে না। আপনি Google Adsense account approval trick এর ব্যাপারে জানার পর এটা আপনাকে অনেক সোজা মনে হবে। যখন আমি প্রথমবার আমার Adsense এর জন্য চেষ্টা করি তখন আমি fail হয়েছিলাম। অনেক বার চেষ্টা করার পর আমি বুঝতে পেরেছিলাম, আমার ভুল কোথায় হচ্ছে। যদি আপনি সেই সব AdSense approval tricks কে follow করেন তাহলে আপনি প্রথমবারেই সফল হয়ে যাবেন।

Google Adsense Account Approval

Google Adsense Account Approval করার টিপস (২০১৯)

Adsense account সবার জন্য না। যদি আপনার কাছে কোন blog কিংবা website থাকে তাহলে আপনি Adsense এর জন্য আবেদন করতে পারেন। যদি আপনার ব্লগ ready থাকে তাহলে নিচের tricks কে follow করুন।

High-Quality Contents লিখুন

Content is the King – কনটেন্ট হল একটি ব্লগের প্রাণ। Content হল আপনি যে article কিংবা post লিখেন তাকেই বলে। তো হাই কোয়ালিটি কনটেন্ট কী? যদি আপনার content নতুন হয়, সবার থেকে আলাদা হয় আর কোথাও থেকে যেন copy না হয়, তাহলে তাকে quality content বলে।

যারা নতুন blogger হয়, তাদের মধ্যে এমন অনেকে আছে যারা ভাবে অন্যের কনটেন্ট কপি করে নিজের ব্লগের জন্য একটি নতুন content তৈরি করে নিবো। কিন্তু Google এতটাও বোকা নয়। Google এ index হওয়া প্রতিটি page কে সে check করতে থাকে। তায় আপনি সহজেই তাকে বোকা বানাতে পারবেন না। আর যদি আপনি ভেবে থাকেন copy করে Adsense account approved করে নিবেন, তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। এটা কখন হবে না।

আপনার প্রতিটি পোস্ট কম করে ৫০০ শব্দের মধ্যে হতে হবে, আর 100% original হতে হবে।এর ফলে আপনার approval এর chances 90% বেড়ে যাবে। আপনি আপনার আর্টিক্যল কে যতটা describe করে লিখতে পারবেন সেটা আপনার ব্লগের জন্য আরো ভাল হবে।

আপনার Blog এর Domain এর বয়স

গুগল এর গাইডলাইন হিসেবে তারা কিছু Asian country তে Adsense কে নিয়ে কিছু restriction করে রেখেছে। এর জন্য আপনি ৬ মাসের আগে Adsense এর জন্য আবেদন করতে পারবেন না। যদি আপনি আবেদন করেন তাহলে আপনার application কে reject করার চান্স অনেক বেশি থাকে। কিন্তু আমি আমার একটি ব্লগে ১ মাসের মধ্যে গুগল Adsense এর approval পেয়েছি। কিন্তু সেই ব্লগের সমস্ত কনটেন্ট ছিল হাই কোয়ালিটি কনটেন্ট। যদি আপনার ব্লগের সমস্ত contents একদম নতুন এবং হাই কোয়ালিটি কনটেন্ট তাহলে আপনি একবার আবেদন করে দেখতে পারেন। আর কী জানি approve ও হয়ে যেতে পারে।

আপনার ব্লগে Sufficient Contents অথবা পোস্ট 

এটা কোথাও লেখা নেয় যে আপনার ব্লগের জন্য এতটা post লাগবে, আপনার Adsense এ apply করার জন্য। কিন্তু আপনার ব্লগে Sufficient Contents থাকতে হবে। আপনি যদি ৩০০ শব্দের একটি পোস্ট লিখেন তাহলে আপনাকে ৩০ -৪০ টা পোস্ট আপনার ব্লগে লিখতে হবে। আর যদি আপনার সমস্ত contents 500-700 words এর মধ্যে হয় তাহলে আপনাকে 20 posts লিখলেই হবে। আপনি যত বেশি words এর content লিখবেন আপনার approval এর চান্স তত বেড়ে যাবে। তায় আপনি সবসময় আপনার contents এর উপর ফোকাস করুন।

Illegal Content লিখবেন না।

যদি আপনার blog কিংবা website এ adult content, হ্যাকিং, casino or ড্রাগ abuse, gambling, related content থাকে তাহলে আপনি Adsense এর কথা ভুলে যান। গুগল এই সব content কে পছন্দ করে না। যদি আপনার ব্লগে এই related কিছু contents থাকে তাহলে আপনি সেগুলো remove করে apply করতে পারেন।

Copyright Materials দিবেন না।

আপনি যদি Internet থেকে কোন text, image, video এর মতো কোন কিছু পান, সেটাকে আপনি direct আপনার blog এ ব্যাবহার করতে পারবেন না, কারণ সেটা আপনার না। যদি আপনি তাকে credit দেন, তাহলে সেটা আলাদা ব্যাপার। আপনি কোন content কে modify করেও দিতে পারবে না। যদি আপনার সেই জিনিস টির permission না থাকে, কিংবা আপনি কোন একটি কনটেন্ট তৈরি করেন, তাহলে আপনি আগে তার Copyrighted Material দেখে নিবেন। Copyrighted Material এর ব্যাপারে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

অনান্য Ad Networks

Adsense এর মতো আরো অনেক  Ad Networks আছে। যদি আপনার ব্লগে আগে থেকে কোন Ad network এর ads লাগানো আছে, তাহলে আপনি প্রথমে সেটাকে হটিয়ে দেন। এতে আপনার approval এর চান্স বেড়ে যায়। কারণ Adsense কিছু advertising networks কে support করে না। যদি আপনারও তাদের মতো থাকে তাহলে আপনার এপ্লিকেশন reject  হবার চান্স থাকে।

User Friendly Design

আপনার ব্লগের design user-friendly হতে হবে। এর মানে আপনার ওয়েবসাইট কে mobile-friendly হতে হবে এবং এর সাথে সাথে navigation হওয়া দরকার। যার মাধ্যমে আপনার যে কোন visitor আপনার ব্লগ কে খুব সহজেই পড়তে পারে, আর যে পেজে ইচ্ছা যেতে পারে। ফালতু কোন widgets বা images লাগাবেন না। এতে আপনার ওয়েবসাইট এ এফেক্ট পরে এবং এর সাথে আপনার ওয়েবসাইট এর লোডিং স্পীড অনেক কম হয়। যেটা আপনার জন্য ঠিক না।


এই সব Pages অবশ্যই দিবেন।

আপনি আপনার ওয়েবসাইট বা blog এ About, Contact, Disclaimer, privacy policy এর পেজ অবশ্যই দিবেন। এমন অনেক ব্লগ আছে যাদের এইসব পেজ নেয় তবুও তাদের Adsense approved হয়েছে, কিন্তু সেটা luck এর ব্যাপার। যদি আপনি এই সব Pages আপনার blog এ লাগান তাহলে আপনার চান্স অনেক বেড়ে যাবে। অনেক সময় এইরকম ও দেখা গেছে Adsense কিছু blogs কে approve দিয়ে দেয় কারণ তাতে এই সব Pages থাকে। এই সব Pages সব blog এর জন্য জরুরী। যার মাধ্যমে visitors আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর ব্যাপারে জানতে পারবে।

Language Support

এইরকম না যে আপনি যে কোন ভাষায় আপনার ব্লগ বানাবেন এবং Adsense সেটাকে approve করে দিবে। Adsense শুধুমাত্র কিছু language কেই support করে, তার মধ্যে Bangla একটি। পুরো language এর list কে জানার জন্য আপনি এখানে click করুন।


বেশি বেশি Image না ব্যাবহার না করা।

আপনি যদি ব্লগে Image বেশি বেশি ব্যাবহার করেন এবং গুগল Adsense এর জন্য আপনি আবেদন করেন তাহলে আপনার application reject করে দিবে। কারণ গুগল কোন ছবি কে পড়তে পারে না। Google শুধু text কে পড়তে পারে। আপনার ব্লগে বেশি বেশি text থাকতে হবে। আপনি যদি  text এর মধ্যে কোন ছবি ব্যাবহার করেন তাহলে Image এর মধ্যে  ALT tag দিতে ভুলবেন না। ALT tag এ যে text লেখা হয়, গুগল তাকে পড়তে পারে। আর গুগল আপনার ছবি কে text মনে করে।

Visitor কখনো কিনবেন না।

Google real visitor বেশি পছন্দ করে, যেগুলো search results থেকে কিংবা social networking sites থেকে আসে। আপনি আপনার ব্লগ এর জন্য traffic কিনে নিতে পারবেন, কিন্তু তার জন্য আপানকে Adsense এর কথা ভুলে যেতে হবে। কারণ Adsense paid traffic কে পছন্দ করে না। যদি আপনার account approved আছে, তাহলে সেটাকে হারাতে বেশি টাইম লাগবে না।

যদি আপনার ব্লগে প্রতিদিন ৫০ জন করে ভিজিটর আসে, তাহলে আপনি গুগল Adsense এ apply করতে পারেন। আপনাকে আপানার সাইট এর জন্য ভিজিটর নিয়ে চিন্তা করে লাভ নাই, কারণ Adsense আপনার সাইট এর quality কে দেখে, ভিজিটর কে নয়।

টপ লেভেল Domain

আপনি সবসময় টপ লেভেল এর Domain ব্যাবহার করুন। আপনি যদি কোন free domain কিংবা sub-domain ব্যাবহার করেন তাহলে আপনি Adsense approve পাবেন না। আপনি সবসময় top level domain ব্যাবহার করবেন যেমন .com, .co , .net, .in ইত্যাদি।



খুব সহজেই Adsense Account Approval করার টিপস

১। নতুন blog দের জন্য সবসময় নতুন নতুন আর latest topic এর উপর post লিখুন। ৫০০ শব্দের ১৫ -২০ টি পোস্ট Adsense apply করার জন্য যথেষ্ট।

২। আপনি আপনার ব্লগে About, Contact, Disclaimer, privacy policy এর page দিতে ভুলবেন না।

৩। আপনি ভিজিটর এর জন্য চিন্তা করবেন না, কারণ ওটা অতটা গুরত্ব পূর্ণ না। আপনি শুধু আপনার সাইট এ quality পোস্ট করুন।

৪। Adsense এ apply কারা পর আপনি আপনার ব্লগ টিকে এমনি রেখে দিবেন না, আপনি প্রতিদিন কিছু না কিছু পোস্ট করুন, তবে অন্য কারো থেকে copy করবেন না।

৫। আপনার ব্লগ টিকে mobile-friendly design করুন।

Apply করার আগে আপনি একবার Adsense Terms and Conditions কে পড়তে ভুলবেন না। তো এই ছিল Google Adsense approval করার টিপস। উপরে দেওয়া সবকিছু যদি আপনি ফলো করেন তাহলে আপনি Google Adsense approval খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। যদি আপার approval নিয়ে কোন সমস্যা হয় তাহলে আমাকে বলতে পারেন কমেন্ট করে।

Previous
Next Post »